সতর্কিকরণ!!! কন্টেস্ট চলাকালিন সময় পালনীয় কিছু পদ্ধতি!

Published by DIU CPC on

আজ আমি এখানে আমার নিজের অভিজ্ঞতা থেকে কিছু টিপস শেয়ার করতে চাই।

১. প্রব্লেম টি মনোযোগ দিয়ে পড়া , প্রব্লেম এ কিছু কিছু লাইন হাইলাইট করে ফেলো, তা ভালভাবে পড়া। সম্পূর্ণ প্রব্লেম তো আগে পড়তেই হবে,তারপর তোমার হাইলাইট করা অংশ গুলো হয়ত লুকিয়ে থাকতে  পারে । আর প্রব্লেমে অতিরক্ত অনেক কথাই লিখা থাকে। যদি মনযোগ দিয়ে হাইলাট করো তাহলে আর বার বার অপ্রয়োজনীয় তথ্য পড়া লাগছে না।

২. স্ট্যান্ডিং দেখে যে প্রব্লেম টি বেশি সলভ হয়েছে তাতে ফোকাস দেয়া । অর্থাৎ যেটি তুলনামূলক  সহজ প্রব্লেম , সেটিই তো সবাই আগে সলভ করে ফেলে,তাই না ? তাই স্ট্যান্ডিং দেখে সেটা সহজেই খুঁজে পেতে পারো।

৩. যেহেতু কন্টেস্ট টাইমে খাতা কলম সাথে রাখা যায় , তাই উচিত হবে মাথায় প্রব্লেম সমাধান হওয়া মাত্রই তা খাতায় রাফ আকারে লিখে ফেলা , এতে কোড টাইপ করতে সুবিধা হবে।

৪. প্রব্লেম এর নিচে অনেক সময় নির্দিষ্ট কন্সটেন্ট মান দেয়া থাকে , তখন ঐ প্রব্লেমটি সলভ এর জন্য সম্পূর্ণ মানটি বা ঐ মানটি-ই ব্যবহার করতে হবে। যেমন পাই এর মান ৩.১৪১৬ দিলে সেটিই ব্যবহার করতে হবে, তুমি দশমিকের পর বেশী কম নিয়ে কাজ করলে হবে না।

৫. টাইপিং স্পিড এর দিকে খেয়াল রাখতে হবে। অনেক সময় টাইপিং স্পিড স্লো হওয়ার কারণে কোড টাইপ করে সাবমিট করতে অনেক টাইম লেগে যায় তখন র‍্যাংকিং পিছিয়ে যায় অথচ প্রব্লেমটির সমাধান হয়ত মাথায় অনেক আগেই হয়ে গিয়েছিল।

৬. আউটপুট যেভাবে চাওয়া হয়েছে ঠিক সেভাবেই প্রিন্ট করতে হবে অর্থাৎ স্পেস , ফ্রন্ট সব খেয়াল করে দেখে টাইপ করতে হবে।

৭. প্রব্লেম AC না হলে বা AC দেখাতে একটু সময় নিলে টেনশন এ পরে গিয়ে একই কোড বার বার সাবমিট করতে থাকলে পেনাল্টি বারতে থাকবে , র‍্যাংঙ্কিং পিছিয়ে যাবে । তাই একই কোড বার বার সাবমিট দেয়া থেকে বিরত থাকতে হবে । লাল রঙ দেখালে তা ঠিক মত চেক করেই আবার সাবমিট করতে হবে।

৮. %d , %s , %c , %lf , %f , & যার যেখানে ব্যবহার বা দরকার সেখানেই তাকে বসাতে হবে।

৯. \n দিতে ভুলে যেওনা ।

১০. আইটপুট অনুসারে %0.2lf , %0.4lf , %0.2f , %0.4f  ইত্যাদি প্রয়োজন মত ব্যবহার করবে। অর্থাৎ এগুলো নির্দেশ করে যে তুমি দশমিক এর আগে বা পরে কত ঘর নিতে চাচ্ছো ।

১১. চেষ্টা করবে কোডের লাইন গুলো গুছিয়ে লিখতে , যদি না পার তাহলে ফুল কোড লিখার পরই কোড ব্লকসে কোডটি সিলেক্ট করে মাউস এর রাইট বাটন ক্লিক করলে দেখবে “Format use AStyle” লিখা।এখানে ক্লিক করলেই দেখবে তোমার কোড একদম সুসজ্জিত হয়ে গিয়েছে।

১২. কনটেস্ট চলাকালীন সময় বার বার ঘড়ি না দেখাই ভালো। মাথায় একটি চাপ তৈরি হতে পারে।

১৩. মনে রাখতে হবে মাথা যত ঠান্ডা এবং স্থির থাকবে সমাধান ততো দ্রুত মিলবে । সবার জন্য শুভ কামনা ।

Author: সাদিয়া সুলতানা কুমু
45th Batch, CSE


0 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *